জনপ্রিয় আর্টিকেলব্লগিং

স্বপ্নের পদ্মা সেতু সম্পর্কে ১০টি বাক্য দেখে নিন

প্রিয় পাঠক আপনি যদি ইতিমধ্যে অনুসন্ধান করে থাকেন স্বপ্নের পদ্মা সেতু সম্পর্কে ১০টি বাক্য সম্পর্কে জানার জন্য তবে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে সহজেই দেখে নিন। আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবে পরিণত হয়েছে। এই মেগা প্রকল্পের পিছনে বাংলাদেশের মানুষের ছিল দীর্ঘ প্রত্যাশা। যা এখন দৃশ্যমান। এই পদ্মাসেতু নিয়ে জেনে নিন ২০ টি বাক্য দেওয়া হলো-

স্বপ্নের পদ্মা সেতু সম্পর্কে ১০টি বাক্য

১) পদ্মা সংযোগ স্থাপন করবে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের সাথে।

২) এটি বাংলাদেশের দীর্ঘতম সেতু। পদ্মা নদীর কিনারায় অবস্থিত মুন্সিগঞ্জে ও লৌহজং ও শরীয়তপুর-মাদারীপুর কে সংযুক্ত করবে পদ্মা সেতু।

৩) পদ্মাসেতু বাংলাদেশের নিজের অর্থায়নে নির্মিত  যার বাজেট ছিল ২৮ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা।

৪) পদ্মাসেতু নির্মাণে ঋণ সহযোগিতা দিতে অস্বীকার করে বিশ্ব ব্যাংক।

৬) পদ্মা সেতুর প্রথম উদ্যোগ গ্রহণ করা হয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে। যার বাজেট ধরা হয়েছিলো ১০ হাজার ১৬১ কোটি টাকা।

৭) পদ্মা সেতুর বাজেট সংশোধন করা হয় মোট ৩ বার। প্রথম বার বাজেট করা ধরা হয় ১০ হাজার ১৬১ কোটি টাকা। ২০১১ সালে এই বাজেট সংশোধন ব্যয় ধরা হয় ২০ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা। পূণরায় ২০১৬ সালে সংশোধন করে ব্যয় ধরা হয় ২৮ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা।

৮) বিশ্বব্যাংক চুক্তি বাতিল করে ২০১২ সালে।

৯) পদ্মা সেতুর মোট দৈর্ঘ্য ৬.১৫০ মিটার। প্রস্থ ১৮.১০ মিটার। এটি দুই স্তর বিশিষ্ট একটি সেতু। স্টিলও ব্যবহার করা হয়েছে এই সেতু নির্মাণে।

১০) পদ্মা মূল সেতুতে মোট ৪২ টি পিলার, ৪১ টি স্প্যান রয়েছে। পদ্মা সেতু দুইস্তর বিশিষ্ট। উপরে সড়ক পথ এবং নিচে রেল পথ।

আপনি হয়তো অনুসন্ধান করে এসেছেন স্বপ্নের পদ্মা সেতু সম্পর্কে ১০টি বাক্য জানার জন্য কিন্তু আমরা আপনার সুবিধার কথা বিবেচনা করে আরও ১০টি বাক্য যুক্ত করে দিলাম। আপনার পছন্দ অনুযায়ী সিলেক্ট করে নিতে পারবেন। 

১১) পদ্মা সেতু নির্মাণে কাজ করেছে দেশ বিদেশের ২৭ জন ইঞ্জিনিয়ার ও ১৩ হাজার শ্রমিক। পদ্মা সেতুতে শিশুর মাথা লাগে যা একটি গুজব ছিল!

১২) পদ্মা সেতু ২১টি জেলা কে সংযুক্ত করবে। বৃহত্তর বরিশাল জেলাকে একত্রিত করবে রাজধানী ঢাকার সাথে।

১৩) পদ্মা সেতুর অর্থনৈতিক গুরুত্ব অপরিসীম। এর ফলে বেকারত্ব দূর হবে। স্থাপিত হবে নতুন নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠান। কৃষি পণ্য আনা নেয়ায় সুবিধা বাড়বে।

১৪) পদ্মা সেতুর ফলে নদী পারাপারে যারা জড়িত তাদের ব্যবসার ক্ষতি হবে। ফেরি চলা চল কমে যাবে। লঞ্চ মালিকদের ব্যবসা লস হবে। এছাড়াও দুই পাড়ের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ক্ষতি হবে।

১৫) পদ্মাসেতু নির্মাণের ফলে দুই পাড়ের সড়ক নির্মাণ ও বৃক্ষরোপণের ফলে আশপাশের পরিবেশের উন্নতি হবে।

১৬) সেতুর মূল কাজ শুরু হয়েছিল অক্টোবর মাসে ২০১৭ সালে। ২০২০ এর মধ্যে ৪২ টি পিলারের কাজ সম্পন্ন হয় যা করতে দেড় বছরের বেশি সময় লেগেছিল।

১৭) পদ্মা একটি বহুমুখী সেতু কারণ এতে রয়েছে রেল ও সড়ক পথ।

১৮) পদ্মা সেতুর উপরের সড়ক ৪ লেইন বিশিষ্ট। যা  দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে যোগাযোগ কে দ্রুত করবে।

১৯) চীনের চায়না ব্রিজ কোম্পানির সাথে ২০১৪ সালে ১৭ জুন পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণের চুক্তি করা হয়।

২০) পদ্মা বিশ্বের ১২২ তম বড় সেতু এবং দেশের সর্ব্বোচ্চ বড় সেতু।  

ধন্যবাদ আপনার অনুসন্ধানের জন্য এবং আমাদের সাইটে ভিজিট করার জন্য। আশাকরি আপনার কাঙ্খিত অনুসন্ধান স্বপ্নের পদ্মা সেতু সম্পর্কে ১০টি বাক্য আমাদের সাইটের মাধ্যমে খুঁজে পেতে সক্ষম হয়েছেন। পদ্মা সেতু নিয়ে শিক্ষণীয় আরো কিছু পোষ্ট আমরা আমাদের এই সাইটে আপনাদের সুবিধার জন্য দিয়ে দিবো। শিক্ষণীয় পোষ্টের আপডেট পেতে নিয়েমিত ভিজিট করুন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button